একই পরিবারের ৬ জনকে হারালো আহত ছাত্রলীগের নাদিম

nadim

আহত ছাত্রলীগকর্মীকে দেখতে গিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও ট্রাকের মধ্যে সংঘর্ষে একই পরিবারের ছয়জনসহ ৭ জন নিহত হয়েছে।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস লাশগুলো উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

সদরের মান্দারি রতনপুর এলাকায় ভোর ৫টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজাহান খান এই তথ্য জানিয়েছেন।

নিহতরা হলেন- অটোরিকশার যাত্রী একই পরিবারের শাহ আলম, নাছিমা আক্তার, রোকেয়া বেগম, শামছুন নাহার, রুবেল, আমিত ও আটোরিকশাচালক নুরু।

তারা নোয়াখালী বেগমগঞ্জ উপজেলার জগদিশপুর এলাকার বাসিন্দা।নিহতের স্বজনরা জানান, নিহত শাহ আলমের ছেলে ছাত্রলীগকর্মী নাদিম মাহমুদ অন্তরকে মঙ্গলবার রাতে লক্ষ্মীপুরের সাদারঘর এলাকায় সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে আহত করে।

এ ঘটনায় তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত নাদিমকে দেখতে বেগমগঞ্জ থেকে তার পারিবারের লোকজন লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে যাওয়ার সময় পথে বিপরিত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে ওই অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক শাহজান খান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।