‘স্ত্রী ১৮’র নিচে হলে মিলন ধর্ষণ’

১৮ বছরের কম বয়সী স্ত্রীর সঙ্গে যৌনমিলনকে ধর্ষণ বলে রায় দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। এমনকি সেটা হলে স্বামী অপরাধী বলে গণ্য হবে। আজ বুধবার এক ঐতিহাসিক রায়ে সর্বোচ্চ আদালত এ কথা জানিয়েছে।

ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী কোনও পুরুষ ১৮ বছরের কম বয়সের কোনও মেয়ের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হলে তা অপরাধের আওতায় পড়ে। কিন্তু যদি সেই মেয়ে তার বিবাহিতা স্ত্রী হয় তা হলে মেয়েটির ইচ্ছা না থাকলেও তা ধর্ষণ হিসেবে গ্রাহ্য হত না। বাল্যবিবাহ আইনসম্মত না হওয়া সত্ত্বেও।

এই বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিল ভারতের মানবাধিকার সংগঠন ইনডিপেনডেন্ট থট।

তাদের আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি শেষে আজ বুধবার এ রায় ঘোষণা করা হলো।

রায়ে বলা হয়, ধর্ষণের আইনে ওই ছাড় দেওয়া বৈষম্যমূলক, মেয়ে শিশুদের জন্য শারীরিকভাবে মর্যাদাহানীকর এবং অসাংবিধানিক। এমন ঘটনা ঘটার এক বছরের মধ্যে অপ্রাপ্তবয়স্ক স্ত্রী স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে পারেন।