সাঁথিয়ায় কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় অন্তঃসত্ত্বার তলপেটে লাথি

pabnaপাবনার সাঁথিয়ায় কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কাকলী (২৭) নামে চার মাসের এক অন্তঃসত্ত্বার তলপেটে লাথি ও বেদম মারপিট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ছানা (৩০) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

আহত গৃহবধূ বর্তমানে সাঁথিয়া হাসপাতাল বেডে পেটের ব্যথায় কাতরাচ্ছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ধোপাদহ ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে।

ছানা একই গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে। এ ঘটনায় গৃহবধূ কাকলী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার সাঁথিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সাঁথিয়া থানায় দায়ের করা লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার গোপালপুর গ্রামের সাদ্দাম হোসেনের স্ত্রী কাকলী খাতুন গত সোমবার দুপুরের দিকে ছানার বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় ছানা তাকে কুপ্রস্তাব দেন।

এতে কাকলী রাজি না হওয়ায় তাকে জিগা গাছের ডাল দিয়ে বেদম মারপিট করে। এ সময় তার তলপেটে লাথি দিলে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা কাকলী মাটিতে লুটিয়ে পড়ে চিৎকার করতে থাকেন। তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে এবং তাকে উদ্ধার করে সাঁথিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় কাকলী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার সাঁথিয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এলাকাবাসী জানায়, ওই বখাটে দুই সপ্তাহ আগে ৭ বছরের এক শিশুকে টাকার লোভ দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করলে লোকজন দেখে ফেলে। পরে তাকে ধরে বেঁধে রেখেছিল ওই শিশুটির বাবা।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাঁথিয়া থানার এসআই ফিরোজ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, অভিযোগ পেয়েছি। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।