যে কারনে অনির্দিষ্টকালের জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা

juঅনির্দিষ্টকালের জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) বন্ধ ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। রবিবার গভীর রাতে জরুরি সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া শিক্ষার্থীদের রবিবার সকাল ১০টার মধ্যে হল ছেড়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। শনিবার (২৭ মে) দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে জরুরি সিন্ডিকেট সভা শেষে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

এদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) বাসের ধাক্কায় দুই ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় অবরোধের ওপর পুলিশের টিয়ারশেল, লাটিচার্জ ও রাবার বুলেট নিক্ষেপে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাস। শনিবার সন্ধ্যায় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের (ভিসি) বাসায় ভাঙচুর করে।

এসময় উপাচার্যের বাসার সামনে থেকে আন্দোলনকারী ৪২ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। আন্দোলনকারী আটক শিক্ষার্থীদের নামে সন্ত্রাসী মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

এদিকে হল বন্ধের সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিক্ষোভ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তাছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে নিন্দার ঝড়।

প্রসঙ্গত, সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের প্রতিবাদ ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে আন্দোলনরত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীদের রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। এতে এক সাংবাদিক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছে আরো ৯ জন। শনিবার বিকেল ৫টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

শিক্ষার্থীরা জানায়, আন্দোলনকারীদের রাস্তা থেকে হঠাতে বিকেল ৫টার দিকে অ্যাকশনে যায় দুই শতাধিক পুলিশ।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম বলেন, আন্দোলনকারীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

এর আগে পাঁচ দফা দাবিতে সকাল সাড়ে ১১টা থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ভোর ৫টায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সিএমবি এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় মার্কেটিং বিভাগের নাজমুল হাসান রানা ও মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের আরাফাত নিহত হন। সাভারের কলমায় অবস্থিত মার্কাস মসজিদ থেকে তাবলীগ জামাত শেষ করে অটোরিকশাযোগে ক্যাম্পাসে ফিরছিলেন ওই দুই শিক্ষার্থী। তাদের রিকশা সিএন্ডবি ও বিশ্ববিদ্যালয় মীর মোশাররফ হোসেন হল সংলগ্ন ঢাকা আরিচা মহাসড়কের মাঝামাঝি স্থানে আসলে পেছন থেকে যাত্রীবাহী একটি বাস ধাক্কা দেয়। এ সময় ওই দুই শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ড. গৌতম ঘোষ নাজমুল হাসান রানাকে মৃত ঘোষণা করেন। আর আশঙ্কাজনক অবস্থায় আরেক শিক্ষার্থী আরাফাত আইসিইউতে রাখা হয়। পরে দুপুর ১২টা ২০ মিনিটের দিকে আরাফাতের মৃত্যু হয়।