যেভাবে বুঝবেন, আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে কি না

facebookকেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারির ধাক্কা সামলাতে না সামলাতেই ফেসবুকে আরেক ধাক্কা। পাঁচ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারী তথ্য বেহাত হয়েছে। বিষয়টি স্বীকার করেছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ। ফেসবুকের নেটওয়ার্কে ঢুকে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনাটি ঘটেছিল গত ২৫ সেপ্টেম্বর। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলছে, ফেসবুক থেকে ঠিক কী ধরনের তথ্য হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে, তা এখনো বুঝতে পারেনি তারা। তবে, ফেসবুক তাদের এক হালনাগাদ বিবৃতিতে গতকাল জানিয়েছে, যাঁরা ফেসবুক ব্যবহার করে অন্য অ্যাকাউন্ট লগ ইন করেন, তাঁরা হ্যাকিংয়ের স্বীকার হয়েছেন।

এর আগে গত মার্চে ফেসবুক থেকে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে যুক্তরাজ্যের নিবার্চনী পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার বিরুদ্ধে, যা ফেসবুক কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারি হিসেবে পরিচিতি পায় এবং ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে ফেসবুক। কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার ওই কেলেঙ্কারির ঘটনায় ৮ কোটি ৭০ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হয়। এ ঘটনায় ফেসবুকের প্রাইভেসি নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সে ঘটনার রেশ কাটতে না-কাটতেই এবার পাঁচ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হওয়ার ঘটনা ঘটল।

আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে কি না, কীভাবে বুঝবেন?

আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হঠাৎ বন্ধ পাচ্ছেন? গতকাল শুক্রবার যাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে জোর করে লগ আউট করে দিয়েছে, তাঁদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ফেসবুক বলেছে, যাঁদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে, তাঁদের নিউজ ফিডের ওপর একটি বার্তা দিয়ে কী ঘটেছে, তা জানিয়ে দেওয়া হবে।

অবশ্য, একটি বিষয় মনে রাখতে হবে, যাঁদের অ্যাকাউন্ট স্বয়ংক্রিয় লগ আউট হয়েছে, তাদের সবার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে, এমন নয়। যাঁরা ফেসবুকের ‘ভিউ অ্যাজ’ ফিচারটি ব্যবহার করেছেন, তাদের সবার অ্যাকাউন্ট জোর করে লগ আউট করে দিয়েছে ফেসবুক। এ ফিচারটির মধ্যেই নিরাপত্তা ত্রুটি ছিল।

রয়টার্স বলছে, ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যে ওই ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টে দুর্বৃত্তদের ঢুকে পড়ার আশঙ্কা বন্ধ করার ব্যবস্থা নিয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফেসবুকে কে বা কারা এই হামলা চালিয়েছে, তা চিহ্নিত করা যায়নি। এ দিকে নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ইতিমধ্যে প্রায় ৯ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীকে তাঁদের অ্যাকাউন্ট থেকে ‘লগ আউট’করতে বাধ্য করা হয়েছে।

পাঁচ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করলেও অন্য ৪ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত নয় তারা।

রয়টার্স বলছে, ফেসবুকের ‘ভিউ অ্যাজ’ ফিচার ব্যবহার করে দুর্বৃত্তরা তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার কাজটি করেছে। আপাতত ‘ভিউ অ্যাজ’ফিচারও বন্ধ করে রাখা হয়েছে।

ফেসবুক বলছে, আক্রান্ত পাঁচ কোটি অ্যাকাউন্টের প্রবেশ ‘টোকেন রিসেট’ করেছে তাঁরা।

সমস্যা কি ঠিক হয়েছে?

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলেছে, তারা সমস্যার সমাধান করেছে। তারা মনে করছে, নিরাপত্তা ত্রুটি ঠিক করা হয়েছে। ওই ত্রুটি ব্যবহার করে ফেসবুক কোডের দুর্বলতার সুযোগে ভিউ অ্যাড প্রাইভেসি টুলে ঢুকতে পারত তারা। ওই প্রাইভেসি টুল ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা তাদের প্রোফাইল অন্যদের কাছে কেমন দেখাবে, তা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।

যাঁরা ফেসবুক ব্যবহার করে অন্য অ্যাপে লগ ইন করেন, তাঁদের সাবধান হতে পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সেটিংসে গিয়ে অ্যাপস অ্যান্ড ওয়েবসাইটে যেতে পারেন। সেখানে লগড ইন ইউজিং ফেসবুক থেকে দেখে নিতে পারেন কোন কোন অ্যাপের সঙ্গে ফেসবুক যুক্ত রয়েছে। ফেসবুক ব্যবহার করে অ্যাপে লগ ইন করার সুবিধা বাতিল করুন। যাঁদের মনে আশঙ্কা আছে তাঁরা দ্রুত ওই অ্যাপের পাসওয়ার্ড বদলে ফেলুন।

আপনার করণীয় কী?

ফেসবুকে সমস্যা হয়েছে মনে করলে দ্রুত পাসওয়ার্ড বদলে ফেলাই ভালো। অবশ্য, ফেসবুক বলছে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন না করলেও চলবে। তবে বদল করলে ক্ষতি নেই। তবে এমন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন যা অন্য কোনো অ্যাকাউন্টে ব্যবহৃত হয়নি। এ ছাড়া দ্রুত সেটিংস থেকে সিকিউরিটি অ্যান্ড লগ ইন অপশন পরীক্ষা করে দেখুন। ফেসবুকে টু-ফ্যাক্টর-অথেনটিকেশন চালু করতে পারেন।

তথ্য নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ম্যাকাফির বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ফেসবুক পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে না বললেও দ্রুত পাসওয়ার্ড বদলে ফেলা উচিত। শুধু ফেসবুকে নয়, ইনস্টাগ্রাম, টুইটারসহ সব সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেই পাসওয়ার্ড বদলানো উচিত। ম্যাকাফির গবেষণায় দেখা যায়, একই পাসওয়ার্ড কমপক্ষে তিনটি অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করেন এক-তৃতীয়াংশ মানুষ।

ফেসবুকের বিরুদ্ধে মামলা

এদিকে তথ্য সুরক্ষা দিতে না পারায় ফেসবুকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় মামলাটি করেছেন ক্লারা ইচাভারি ও ডেরিক ওয়াকার নামের দুজন ফেসবুক ব্যবহারকারী। তাঁরা ফেসবুকের বিরুদ্ধে অনৈতিক প্রতিযোগিতা আইন, অবহেলা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে যথাযথ ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ করেছেন।
তথ্যসূত্র: গিজমোডো, ইউএসএ টুডে, ফোর্বস।-প্রথম আলো