মসজিদে হামলার খবর পেয়ে বিয়ের উৎসব বাদ দিয়ে ছুটে আসেন নব-দম্পতি

hamla

মসজিদে হামলার খবর পেয়ে বিয়ের উৎসব বাদ দিয়ে ছুটে আসেন নব-দম্পতি।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে উগ্রপন্থী শ্বেতাঙ্গের বন্দুকের গুলিতে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানালেন এক খ্রিষ্টান নব-দম্পতি।

দেশটির টোরাঙ্গার দম্পতি রেইস এবং কেলি ক্যাম্পবেল তাদের জীবনের সবচেয়ে আনন্দময় দিনটি নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ দিনের সাথে অন্যভাবে উপস্থাপন করলেন।

১৫ মার্চ যখন মসজিদে হামলার খবর পান তারা, তখন তাদের বিয়ের উৎসব চলছিল। খবর শোনার পরপরই নববধূ তাদের নিজস্ব উৎসব থেকে একটি বিরতি নেন।

তাদের বিয়ে সম্পন্ন না করেই স্থানীয় সময় বিকাল তিন টার দিকে টোরোঙ্গ মসজিদের বাইরে তাদের বিবাহের গল্ফগুলি (ফুলের তোড়াবিশেষ) বসিয়ে দেয়।

ক্রাইস্টচার্চ সন্ত্রাসী হামলায় দুই মসজিদে ৪৯ জন নিহত হযওয়ার শোককে নিজেদের ঘোষণা করে বাড়িতে যাওয়ার পথে তারা মসজিদটিতে তাদের তিনটি বিবাহের ফুলের গাউন ছেড়ে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

রেইস ক্যাম্পবেল বলেন, আমরা খবরটি শোনার পরই খুব আঘাত পেয়েছিলাম এবং যাদের পরিবারের লোকজন নিহত হয়েছে তাদের জন্য বেশ দু:খিত অনুভব করেছি।

ক্যাম্পবেল বলছিলেন, তিনি গতকাল তার বিয়ের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ঠিক তখনই তার একজন বন্ধু তাকে ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী আক্রমণ সম্পর্কে বলেছিল।

তিনি বলেন, “নিউজিল্যান্ডে যেটা ঘটেছে তা খুবই দুঃখজনক”।

এরপর আজ শনিবার সকালে নবদম্পতি মাউন্ট মানগুনি সৈকতের কাছে একটি স্থানীয় গির্জায় গিয়ে নিহত মুসলিমদের জন্য প্রার্থনা করেন।