বাংলাদেশের সব চেয়ে দৃষ্টি নন্দন গেট এখন রুয়েটে

ruetউত্তর বঙ্গের প্রকৌশল শিক্ষার অন্যতম শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন শোভা পাচ্ছে বাংলাদেশের সব চেয়ে দৃষ্টি নন্দন মেইন ফটক। এই ফটকটির জন্য বিভিন্ন সময়ে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী গণ আবেদন এবং আন্দলন করে আসছিল।

শিক্ষার্থীদের প্রাণের দাবী পূরণের জন্য ২০১৪ সালের এপ্রিল-মে মাসে মেইন ফটকের জন্য নকশা তৈরির প্রতিযোগিতা আহবান করে রুয়েট প্রশাসন। আর্কিটেকচার বিভাগের ২০১৩-২০১৪ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা ৫ টি ভাগে ভাগ হয়ে উক্ত প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় এবং তাদের নকশা জমা প্রদান করে।

তাদের স্টডিও প্রজেক্ট প্রেসেন্ট করতে হয় মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর ও অন্যান্য সম্মানিত শিক্ষকদের উপস্থিতিতে। সব সাবমিশন থেকে একটি ডিজাইন সম্মানিত জুরি বোর্ডের সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।
নকশা গ্রহণ করার পর ফটকের মূল আর্কিটেকচারাল ডিজাইন এর কাজ ফাইনাল করেন উক্ত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ আসাদুজ্জামান সোহাগ এবং মোঃ সাব্বির আহসান।।

সব থেকে মূল কাজ যেটা স্টাকচারাল ডিজাইন অকালান্ত পরিশ্রম করে সেটা করেন সিভিল বিভাগের অধ্যাপক ডঃ তহুর আহমেদ, অধ্যাপক ডঃ শফিকুল ইসলাম এবং অধ্যাপক ডঃ মাহমুদ সাজ্জাদ।

কন্সট্রাকশনের সম্পূর্ণ কাজ নিবিড় ভাবে পরিচালনা করেন সিভিল বিভাগের অধ্যাপক ডঃ মোঃ কামরুজ্জামান নয়ন এবং প্রভাষক মোঃ মাসুদ রানা।।

তবে সম্পূর্ণ কাজের বাস্তবায়ন দেখভাল করেন অধ্যাপক ডঃ আব্দুল আলীম, উন্নয়ন ও পরিকল্পনা।।

উক্ত ফটক তৈরিতে মোট খরচ হয় প্রায় ৮০ লাখ টাকা।।

স্বপ্নের ফটকটি আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেয়া হয় ৯ই নভেম্বর, ২০১৭।। প্রথম দিনেই অত্র প্রতিষ্ঠান এর বর্তমান এবং প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা আনন্দ প্রকাশ করে। সবাই নিজেদের ফেসবুকে ফটকের ছবি কাভার ফটো দিয়ে নিজেদের উচ্ছাস প্রকাশ করে এবং রুয়েট প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানায়।

তাদের দাবী কোন ধরনের ব্যানার, ফেষ্টুন যাতে উক্ত ফটকের সৌন্দর্য নষ্ট না করে এবং চলমান অন্য অন্য কাজ গুলোও যেন এটার মত দৃষ্টি নন্দন হয়।।