অনৈতিক সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীর যৌনাঙ্গে বাঁশ ঢুকিয়ে হত্যা করল স্বামী!

bashস্বামী প্রতিবেশী এক নারীর সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল। স্ত্রী এই অনৈতিক সম্পর্কের প্রতিবাদ করতেই তার যৌনাঙ্গে বাঁশ ঢুকিয়ে হত্যা করেছে। এমন অভিযোগ উঠেছে ওই ঘাতক স্বামীর বিরুদ্ধে।

ভারতের মালদার পুখুরিয়ার ছরকামারি গ্রামে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে।

জানা গেছে, মালদার পুখুরিয়ার ছরকামারি গ্রামের বাসিন্দা গেদু শেখ। তিনি পেশায় একজন লরিচালক। গেদুই তার স্ত্রী এমন নির্মমভাবে খুন করেছে।

স্থানীয়রা জানান, পেশায় লরিচালক গেদু প্রতিবেশী সাহানুর বেওয়া নামে এক নারীর সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। গত কয়েক মাস ধরেই তাদের মধ্যে এই সম্পর্ক চলে আসছিল। স্বামীর পরকীয়া সম্পর্কের কথা জানতে পেরে প্রতিবাদ করেন গেদুর স্ত্রী মিনু বিবি। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে প্রায় প্রতিদিনই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-অশান্তি লেগে থাকত। গত বুধবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ চরমে পৌঁছায়।

অভিযোগ, তখনই স্ত্রী মিনু বিবির উপর চড়াও হয় গেদু শেখ। প্রথমে স্ত্রী মিনু বিবিকে প্রচণ্ড মারধর করে। এরপরই স্ত্রীর যৌনাঙ্গে বাড়ির কাজে ব্যবহারের জন্য পড়ে থাকা বাঁশ ঢুকিয়ে তাকে খুন করে সে। এখানেই থেমে থাকেনি ঘাতক স্বামী, খুনের পর সমস্ত প্রমাণ লোপাট করতে মিনু বিবিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেয় গেদু। এমনকি স্ত্রী মিনু বিবির খুনের সময় ঘটনাস্থলেই উপস্থিত ছিল গেদু শেখের প্রেমিকা সাহানুর বেওয়া।

ঘটনার দিন সকালে গ্রামবাসীরা ঘরের মধ্যে থেকে মিনু বিবির ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। গ্রামবাসীরা প্রথমে মিনু বিবি আত্মহত্যা করেছে ভেবে নেয়, কিন্তু পরে মেঝেতে রক্তের দাগ দেখে তারা খুনের বিষয়ে নিশ্চিত হয়। আর সঙ্গে সঙ্গেই তারা পুখুরিয়া থানায় খবর দেয়।

এলাকাবাসী ও মৃতার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এদিকে, ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত স্বামী গেদু শেখ ও প্রতিবেশী প্রেমিকা সাহানুর বেওয়া পলাতক রয়েছে। ইতোমেধ্য অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে দিয়েছে পুলিশ।