বজ্রপাতে ৮ শিশুর মৃত্যু

thanderবাড়িতে পৌঁছানোর আগে আচমকা আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নেমে পড়ায় রাস্তার পাশেই একটি বড় গাছের নিচে তারা দাঁড়িয়ে পড়ে নিরাপদ ভেবে। কিন্তু, বৃষ্টিতে না ভিজতে সেই গাছই যে মরণফাঁদ হয়ে উঠবে, কী করেই বা জানবে ওই ছোট্ট শিশুরা! ভারী বৃষ্টির মাঝেই পিলে কাঁপানো পরপর বজ্রপাতের শব্দ শোনা গিয়েছিল কয়েক বার।

প্রকৃতির সেই বিদ্যুৎগর্জন নীরব ঘাতক হয়ে গ্রামবাসীদের জন্য বিষাদ বয়ে এনেছে, বৃষ্টি থামার আগে পর্যন্ত কেউ আভাসও পাননি। গাছতলায় পড়ে থাকা আট শিশুর নিথর, নিষ্প্রাণ দেহ। প্রকৃতির এই নিষ্ঠুরতা বোবা করে দেয় গোটা গ্রামকে। শুক্রবার দুপুরে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বিহারের নওয়াদায়, ধনাপুর গ্রামে।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, শুক্রবার দুপুরে ধনাপুর গ্রামের গোটা কয়েক শিশু স্থানীয় একটি মাঠে খেলছিল। সেসময় হঠাৎ প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়। মাথা বাঁচতে সবাই দৌঁড়ে গিয়ে আশ্রয় নেয় একটি গাছের তলায়। কিছুক্ষণ বাদে আচমকা একটি বাজ পড়ে ওই গাছের উপর। তাতেই মৃ’ত্যু হয় ৮ শিশুর। এতে আহত হয়েছে আরও অন্তত ১০ শিশু। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে কয়েক জনের অবস্থা আ’শঙ্কাজনক।

ম’র্মান্তিক এই ঘটনায় মৃ’তদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। মৃ’তদের পরিবার প্রতি ৪ লাখ রুপি করে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। আহতদের চিকিৎসা খরচও রাজ্য সরকার বহন করবে।