বইমেলায় পর্ন তারকার নামে স্টল

miaসেই বইমেলায় পর্ন অভিনেত্রী জনি সিন্স ও মিয়া খলিফার নামে একটি স্টলের ব্যানার টাঙানো হয়েছে। এ নিয়ে নিন্দার ঝড় ও তোলপার শুরু হয়েছে গোটা এলাকায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওই স্টলের তিন মালিক শান্ত, রোকন ও মাহফিজকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

মেলার আয়োজক কমিটির একজন সদস্য জানান, কালিহাতি উপজেলা পরিষদ ও প্রশাসনের সহযোগিতায় মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী বইমেলা আয়োজন করে কালিহাতী উপজেলা সাধারণ পাঠাগার কমিটি।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বইমেলার উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মোছাম্মৎ শাহীনা আক্তারের সভাপতিত্বে এ মেলাটির উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোজহারুল ইসলাম তালুকদার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ হাছান ইমাম খান সোহেল হাজারী এবং প্রধান আলোচক হিসেবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোস্তফা নাজমুল মানছুরসহ স্থানীয় বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা ও সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মেলার ৩৯ নম্বর স্টলে জনি সিন্স ও মিয়া খলিফার নামে ব্যানার টাঙানো হয়। অনলাইনে দেখা গেছে জনি সিন্স ও মিয়া খলিফা পর্ন তারকার নাম। স্টলের নামকরণের ব্যানারটি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এতে ব্যাপক সমালোচনা ও নিন্দার সৃষ্টি হয়েছে সচেতন মহলে। কিভাবে পর্ন তারকার নামে স্টলে ব্যানার টাঙানো হয়েছে এ নিয়ে জনমনে দেখা দেয় নানা প্রশ্ন।

এ বিষয়ে ভাষা সৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কবি বুলবুল খান মাহবুব বলেন, একুশ আমাদের চেতনা। একুশের ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। সেই একুশের গ্রন্থমেলায় একজন পর্ন তারকার নামে স্টলে ব্যানার টাঙানো অত্যন্ত দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। এটা মেনে নেয়া যায় না।

এ বিষয়ে কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও একুশে গ্রন্থমেলা উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক শাহীনা আক্তার বলেন, রোকন নাম দিয়ে স্টল বরাদ্দ নিয়ে কিভাবে জনি সিন্স পর্ন তারকার নামে স্টলে ব্যানার টাঙানো হয়েছে সেটা স্টল বরাদ্দ উপ-কমিটির কাছে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার স্টলের তিন মালিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।