তিতলির প্রভাবে অর্ধশতাধিক গ্রাম পানির নিচে

tatliঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে পটুয়াখালীতে ক্রমশই আবহাওয়ার অবনতি ঘটছে। জোয়ারের উচ্চতা বেড়ে প্লাবিত হয়েছে জেলার অন্তত ৫০টি গ্রাম।

বিভিন্ন স্থানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধ মেরামত না করায় তলিয়ে গেছে রোপা আমনের ক্ষেত। পানিবন্দী হাজারো পরিবার।

আকস্মিক বন্যায় বন্ধ করে দেয়া হয়েছে পায়রা সমুদ্র বন্দরের সকল কার্যক্রম। জেলার অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার রুটের সব নৌযান চলাচল বুধবার থেকে বন্ধ রয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে বরিশাল-খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি অব্যাহত আছে। বৃহস্পতিবার ভোরে ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূল পার হয়ে গেছে ভারতের দিকে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, উপকূলীয় অঞ্চলে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে আরও দু-একদিন। এছাড়া খুলনা-বরিশাল অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে। সাগর উত্তাল থাকায় চারটি সমুদ্র বন্দরকে চার নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। দুর্ঘটনার ঝুঁকি এড়াতে সারা দেশে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ।