ট্রাম্প কন্যাকে ‘আলিঙ্গন’, অতঃপর…

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কন্যা ইভানকা ট্রাম্পকে আলিঙ্গন করতে চেয়েছিলেন রিপাবলিকান দলের সিনেটর মার্কো রুবিও। তিনি তাকে জাপটে ধরতে গিয়েছিলেন। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন। কারণ, ওই সময় ইভানকা শক্ত হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। আর এ ঘটনার ছবি ও প্রকাশিত কয়েকটি বার্তা নিয়ে ঝড় উঠেছে টুইটারে।

গত মঙ্গলবার ট্রাম্পের কন্যা ইভানকার সঙ্গে একটি বৈঠক ছিল মার্কো রুবিওর। আর সেখানেই ঘটে এ ঘটনা। ওই ছবি প্রকাশ হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা নিয়ে হইচই শুরু হয়। নানান মশকরা করেছেন অনেকে। কেউ বা তির্যক বাক্যও ছুড়েছেন। এটা নিয়ে সরেস আলোচনার পরই বিষয়টি এখন তদন্ত করছে সিনেট ইন্টেলিজেন্স কমিটি।

ওই ছবিতে দেখা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপিটাল হিলে ট্রাম্প কন্যা ইভানকাকে জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করছেন রুবিও। ইভানকাকে আলিঙ্গন করতে চাওয়ার একটি ছবি প্রকাশ করে রুবিও টুইট করেন, ‘ব্রেকিং নিউজ!’ কিছুক্ষণ পর একটি টুইটে রিপাবলিকান সিনেটর রুবিও জানান, সেখানে কী ঘটেছিল, তা তিনি পরে জানাবেন।

ওই বার্তার আধা ঘণ্টা পরে রুবিও লেখেন, এটি ব্যর্থ আলিঙ্গন ছিল। ওই বার্তায় রুবিও ইভানকা ট্রাম্পের সঙ্গে আলিঙ্গনের একটি ছবি প্রকাশ করেন। এর পর আবার আবার মজা করেই রুবিও লেখেন, জড়িয়ে ধরার কোনো ঘটনা ঘটেনি। এটা অপপ্রচার। পরে অবশ্য রুবিও বারবার টুইট এবং ওই ঘটনার ব্যাপারে টুইট করেন ইভানকা। একটি ছবি পোস্ট করে তাতে ইভানকা লেখেন, ‘মিথ্যা খবর, রুবিও একজন অভিজ্ঞ আলিঙ্গনকারী।’

এদিকে ইভানকা ও রুবিওর ওই ছবি ছড়িয়ে পড়া নিয়ে টুইটারে বেশ কয়েকটি টুইট করা হয়েছে রুবিওর অ্যাকাউন্ট থেকে। রুবিও আলিঙ্গন করতে চাওয়ার বিষয়টি যেহেতু সিনেট ইন্টেলিজেন্স কমিটি তদন্ত করছে তাই ইভানকা ও মার্কো রুবিও দুজনেই বিষয়টি নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ ঝেড়েছেন। তথ্যসূত্র বিবিসি ও দ্য গার্ডিয়ান