জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী এটিএম শামসুজ্জামান আবারো লাইফ সাপোর্টে

atm

রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন একুশে পদকজয়ী অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান।

শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছেন তার স্ত্রী রুনি জামান।

তিনি বলেন, এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা এখন খানিকটা স্থিতিশীল রয়েছে।

atm (3)

তবে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকেও সবুজ সংকেত পেয়েছে এটিএম পরিবার।

তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে সবুজ সংকেত পেলেও অপেক্ষা করতে হবে আরও দুয়েকদিন।

কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাজ্য সফর থেকে দেশে ফিরবেন ১১ মে।

atm (4)

এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিদ্ধান্ত আসবে বলে জানান রুনি।

বরেণ্য এই অভিনেতার চিকিৎসার বিষয়ে বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন সাংবাদিকদের জানান, এটিএম শামসুজ্জামানের পরিবারের কাছ থেকে তিনি জানতে পেরেছেন বিদেশে নেয়ার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে সবুজ সংকেত পাওয়া গেছে।

shomanto

তবে এ বিষয়ে আমি আসলে পুরো নিশ্চিত নই। এর আগে গত ৩ মে শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হওয়ায় তার লাইফ সাপোর্ট খুলে নেওয়া হয়েছিল।

তিনি আরো জানান, এটিএম শামসুজ্জামান এখনও লাইফ সাপোর্টেই আছেন।

তার শরীরিক অবস্থা খুব ভালো না আবার খারাপ না। তার শারীরিক অবস্থা এখন খানিক স্থিতিশীল রয়েছে।

atm

অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। আবারো লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়েছে গুণী এ অভিনেতাকে।

রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালের লাইফ সাপোর্টে থাকা জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে।

বুধবার সকালে থেকে তার খাদ্যনালী চেপে যাওয়ায় চিকিৎসকরা ওষুধ দিয়ে জটিলতা দূর করার চেষ্টা করছেন।

atm (5)

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে তার ছোটভাই সালেহ জামান এ তথ্য জানিয়েছেন।

পরিবারের তরফ থেকে এ অভিনেতাকে দেশের বাইরে সিঙ্গাপুরে নেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ‘মানসিক সন্তুষ্টির জন্য উনাকে দেশের বাইরে নিতে পারেন।

কিন্তু এখানে যে চিকিৎসা চলছে বাইরেও সেই চিকিৎসায় হবে।সালেহ জামান বলেন, প্রধানমন্ত্রী ১০ মে দেশে ফিরবেন।

pm

উনি (প্রধানমন্ত্রী) আমাদের মুরব্বী। দেশে ফিরলে উনার সঙ্গে কথা বলে আমরা সিদ্ধান্ত নেব ভাইয়ের ব্যাপারে।

আল্লাহ যদি ততদিন উনাকে বাঁচিয়ে রাখেন।’ গত ২৬ এপ্রিল এ অভিনেতাকে অসুস্থ অবস্থায় আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরিপাকতন্ত্রের জটিলতায় আক্রান্ত এটিম শামসুজ্জামানের শারিরীক অবস্থা বিবেচনার পরদিনই অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা।

atm (4)

অস্ত্রোপচারের তিন দিনের মাথায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে কেবিন থেকে আইসিইউতে নিয়ে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয় এই অভিনেতাকে।

অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র পর্দায় আগমন ১৯৬৫ সালের দিকে।

১৯৭৬ সালে চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ ছবিতে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে আলোচনায় আসেন তিনি।

atm

নাটক ও চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য আজও তিনি বাংলাদেশের দর্শকের কাছে তুমুল জনপ্রিয়।

প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে কাজ করেছেন ‘জলছবি’ ছবিতে। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন।

প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন তিনি।

atm (6)

শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে পেয়েছেন রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদক।

এটিএম শামসুজ্জামান ‘দায়ী কে’, ‘ম্যাডাম ফুলি’, ‘চুড়িওয়ালা’, ‘মন বসে না পড়ার টেবিলে’ ও ‘চোরাবালি’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।

এদিকে তার অভিনীত এবং নাসির উদ্দীন ইউসুফ পরিচালিত ‘আলফা’ ছবিটি গত ২৬শে এপ্রিল দেশের চারটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।