কাফনের কাপড়ে আমরণ অনশনে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতার মা

diazকেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর হত্যাকারীদের বিচার ও আসামিদের গ্রেফতার দাবিতে আমরণ অনশন শুরু করেছেন তার মা জাহেদা আমিন চৌধুরী। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে তিনি অবস্থান নিয়েছেন।

সোমবার সকাল ৯টায় তিনি বঙ্গবন্ধু চত্বরে অবস্থান নিয়ে আসামিদের গ্রেফতারের দাবি জানান। তবে সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে চবি মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে শহীদ মিনারে চলে আসেন তিনি।

বেলা ১২টা থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘দিয়াজ হত্যার বিচার চাই’ শিরোনামে একটি ব্যানার ও কাফনের কাপড় পড়ে অবস্থান নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার ছেলের কবরের মাটি নিয়ে শপথ করে আসছি। এখান থেকে আমার মরদেহ নিতে হবে। কাফনের কাপড়ে নিতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত একজন আসামিও গ্রেফতার না হয় এখান থেকে আমি সরবো না।’

‘যদি এখান থেকে আমাকে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাহলে শহরের প্রেস ক্লাবের সামনে চলে যাব। রাজপথে হাঁটবো। আমাকে নির্যাতন করে মেরে ফেলুক, না হয় আমার ছেলের আসামিদের গ্রেফতার করা হোক’

এসময় তিনি রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলর আবদুল হামিদের কাছে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ‘ভিসিকে অপসারণ করুন। ভিসি অপসারণ না হলে আমার ছেলের হত্যাকারীরা গ্রেফতার হচ্ছে না। ওদেরকে বাঁচিয়ে ফেলছে।’

দিয়াজ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রক্টর আনোয়ার চৌধুরী। তার বিষয়ে দিয়াজের মা বলেন, ‘খুনি শিক্ষককে আরো প্রমোশন দেয়ার চেষ্টা চলছে। পিএইচডি ডিগ্রি দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। খুনি আসামিরা শিক্ষক হতে পারে না।’

উল্লেখ্য, গত বছরের ২০ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২নং গেট এলাকার একটি ভাড়া বাসায় দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পর পরিবারের পক্ষ থেকে ২৪ নভেম্বর আদালতে অভিযোগ (সিআর মামলা) দেন দিয়াজের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী। এক বছর পেরোলেও পুনঃময়না তদন্ত, তদন্তের ভার সিআইডি হয়ে পুলিশ, হত্যা মামলা হিসেবে থানায় নথিভুক্ত ছাড়া আর কোনো কিছুই হয়নি। গ্রেফতার হয়নি কোনো আসামি।