এই মাত্র পাওয়া : বিকেলেই ধেয়ে আসছে কালবৈশাখী ঝড়

jhor

কয়েকদিন ধরেই রাজধানীসহ সারাদেশে ঝড়-বৃষ্টিসহ বজ্র-বৃষ্টি হচ্ছে।

রোববার ১৪২৬ বঙ্গাব্দের প্রথম দিন, পহেলা বৈশাখ।

বৈশাখের প্রথম প্রভাতে মেঘের আনাগোনা ছিল আকাশ জুড়ে। কিন্তু বেলা বাড়ার সাথে সাথে মেঘকে সরিয়ে সূর্যের আলো ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে।

সকালে আকাশে মেঘের আনাগোনা থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তা কেটে যাবে, অনুভূত হবে ভ্যাপসা গরম।

আর বিকেলের দিকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি। আবহাওয়া অফিস এ তথ্যই জানিয়েছে।

kalboishakhiআবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, নববর্ষের দিন দেশের বেশির ভাগ জায়গায় প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

দুপুরের পর অনেক জায়গায় বিশেষ করে দেশের পশ্চিম অংশে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

রংপুর, রাজশাহী, যশোর, কুষ্টিয়া এবং ঢাকাতেও বিকেল বা সন্ধ্যার দিকে ঝড়-বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সকালের দিকে একটু মেঘলা আকাশ থাকতে পারে। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেটা কেটেও যাবে।

তাই বিকেল পর্যন্ত ভ্যাপসা গরম থাকতে পারে। গত দুই দিন থেকে যেহেতু ঝড়-বৃষ্টি কম হওয়ার একটা ট্রেন্ড শুরু হয়ে গেছে, বলা যেতে পারে আগামী সপ্তাহ এভাবেই থাকতে পারে।

বিক্ষিপ্তভাবে দুই-এক জায়গায় ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে।

তবে আপাতত বড় ধরনের ঝড়-বৃষ্টির আশঙ্কা কম। ঢাকায় তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস কম আছে।

এছাড়া বরিশাল ও চট্টগ্রাম ছাড়া দেশের অন্যান্য বিভাগেও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম রয়েছে বলেও জানান আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস।

গতকাল শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে টাঙ্গাইলে।

একই সময়ে চাঁদপুরে চার, ময়মনসিংহে তিন ও নিকলীতে দুই মিলিমিটার ও ঢাকায় বিকেলে ঝড় বৃষ্টি হয়।

এছাড়া সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর,

রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দুই-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। সূত্র : বারতা