অবশেষে ১৩৭ সদস্যের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করল আ’লীগ

llig logoআগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৩৭ সদস্যের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করেছে আওয়ামী লীগ। এর অংশ হিসেবে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠনের পাশাপাশি ৮ বিভাগে ‘নির্বাচন পরিচালনা’ কমিটি গঠন করেছে আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা কমিটির চেয়ারম্যান, এইচটি ইমাম কো-চেয়ারম্যান ও সদস্য সচিব ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির বৈঠকে এ কমিটি গঠন করা হয়।

এসময় দলের নেতাদের উদ্দেশে তিনি দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে বাংলাদেশের মানুষ আগামী নির্বাচনেও নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করবে এবং উন্নয়নের ধারা বজায় রাখবে।’

আওয়ামী লীগ টানা দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার পরও তাদের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে পেরেছে জানিয়ে তিনি বলেন, এটি এক দুর্লভ ঘটনা। জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস ধরে রাখা আওয়ামী লীগের জন্য সম্ভব হয়েছে, কারণ তারা সত্যিকার অর্থে দেশের মানুষের জন্য কাজ করছেন।

প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আমাকে মেরে ফেলতে পারে। কিন্তু ইন-জেনারেল কেউ এসে ওনাদেরকে কোলে তুলে নিয়ে ক্ষমতায় বসাবে না। ওই মানসিকতা কারও নাই। কারণ, উন্নয়নটা আমরা সকলের জন্য করেছি। সবাই এটা উপলব্ধি করতে পারে।’

আওয়ামী লীগ-বিএনপির বাইরে তৃতীয় জোটকে স্বাগত জানিয়ে তাদেরকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়ার জন্য ডিএমপি কমিশনারকে অনুরোধ করে তিনি বলেন, ‘তারা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করুক। আমি কমিশনারকে (ডিএমপি কমিশনার) অনুরোধ করব।’

তবে মিথ্যাচার কারীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, ‘যারা মিথ্যাচার করবে, সংঘাত সৃষ্টি করবে, তাদের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নেব।’

এদিকে বৈঠকে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ছাড়াও ১৩৭ সদস্যের কমিটিতে সহযোগী ৭ সংগঠনের সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সংগঠনগুলো মধ্যে রয়েছে- বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ, যুবলীগ, কৃষক লীগ, তাঁতী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুব মহিলা লীগ। এছাড়াও বিভিন্ন উপকমিটি গঠন করা হয়েছে।