অবশেষে জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

khaledaমুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভিযোগে ঢাকা ও নড়াইলে করা পৃথক মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ এক বছর বাড়িয়েছেন হাইকোর্ট।

এই দুই মামলায় ৬ মাসের জামিনে ছিলেন কারাবন্দি খালেদা জিয়া, যা আগামী সপ্তাহে শেষ হতো।

তার আইনজীবীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ   বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে খালেদার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট এ জে মুহাম্মদ আলী এবং তার সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

এর আগে হাইকোর্ট খালেদা জিয়াকে দুই মামলায় ৬ মাস করে জামিন দিয়েছিলেন। মেয়াদ শেষ হওয়ায় ফের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে একবছর করে বাড়িয়েছেন।

উল্লেখ্য, মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্য করায় মানহানির অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর নড়াইল সদর আমলি আদালতে একটি মামলাটি করেন জেলার নড়াগাতী থানার চাপাইল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রায়হান ফারুকী ইমাম।

এদিকে ২০১৬ সালের ৫ জানুয়ারি এবি সিদ্দিকীর করা মামলায় ঢাকা মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট আদালত গত বছরের ৭ আগস্ট খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ করেন।

এরপর খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হলে গত বছরের ১৪ আগস্ট আদালত তাকে ৬ মাসের জামিন দেন।